ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক বা ড্রাইভিং লাইসেন্স হয়েছে কিনা কিভাবে জানবো

ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক করতে, বিআরটিএ তে ছোঁটাছুটি করে কিংবা সহজে হয়ত ড্রাইভিং লাইসেন্স করে এসেছেন। তর সইছে না কিংবা অখান থেকে আপনাকে জানিয়ে দেয়া হয়নি ঠিক কবে ড্রাইভিং লাইসেন্স হাতে পাবেন।

বাসায় বসে ভাবছেন ড্রাইভিং লাইসেন্স হয়েছে কিনা কিভাবে জানবো? টেনশন কইরেন না, এটুকু অস্থিরতা সবাইর লাগে। কিন্তু, এমন যদি হয় আপনি বাড়িতে বসেই ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক করতে পারছেন।

কেমন হবে, দারুণ ইমজি না? অবশ্যই ব্যাপারটা দারুণ। এই লেখাটি পড়ে আপনি জানবেন কিভাবে ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক করবেন কিংবা ড্রাইভিং লাইসেন্স হয়েছে কিনা কিভাবে জানবো অনলাইনে। পড়তে থাকুন।

আপনার কোন উপকার হলে দয়া করে ফেসবুকে শেয়ার করবেন। আমাদের কষ্ট সার্থক হবে এবং অন্যকে জানার সুযোগ করে দিবেন প্লিজ।

ড্রাইভিং লাইসেন্স জিনিসটা আসলে কি?

আপনি নিশ্চয় মোটরসাইকেল ভালবাসেন? কে  মোটরসাইকেল ভালবাসে না? মোটর সাইকেল চালাতে গিয়ে কখনো পুলিশের কাছে তাড়া খেয়েছেন? যদি পুলিশের তাড়া না খেয়ে থাকেন আপনি লাকি বলতেই হয়।

একটা বিষয় নিশ্চয় জানেন, মোটর সাইকেল বা যেকোনো যানবাহন আপনি বৈধ অনুমতি ছাড়া হাই ওয়েতে চালাতে পারবেন না। এর জন্য আপনি যে গাড়ি চালাতে পারেন এর কোন বৈধ বা দালিলিক প্রমাণ নেই।

যেটা দেখে ট্রাফিক সংস্থা আপনাকে হাইওয়েতে নিরাপদ মনে করবে। যাতে আপনি নিজের, অন্যর বা কারো সম্পদ বা দুর্ঘটনার কারণ হবেন না।

কিংবা আপনি যে ড্রাইভিং এ দক্ষ তার সার্টিফিকেট হল ড্রাইভিং লাইসেন্স। চলুন জেনে আসি ড্রাইভিং লাইসেন্স করতে কি কি লাগে?

আরও পড়ুন- নষ্ট মেমোরি ঠিক করার উপায়

ড্রাইভিং লাইসেন্স করতে কি কি লাগে?

ড্রাইভিং লাইসেন্স করতে চাচ্ছেন? কংগ্রাচুলেশন। ভাই, আপনি আসল দেশ প্রেমিক। আপনার মত সচেতন নাগরিকের অনেক প্রয়োজন আমাদের বাংলাদেশের জন্য।

ড্রাইভিং লাইসেন্স করতে প্রথমে  আপনার লাগবে লার্নার মানে হল, শিক্ষানবিশ ড্রাইভিং লাইসেন্স। এর মানে হল আপনি এখনো ড্রাইভিং শিখছেন। এবং আপনার প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষাগত যোগ্যতা কমপক্ষে ৮ম শ্রেণী পাশ। ড্রাইভিং লাইসেন্স মূলত ২ ধরণের হয়ে থাকেঃ

  • পেশাদারঃ পেশাদার বা প্রফেশনাল লাইসেন্স নিতে হলে আপনার বয়স কমপক্ষে ২১ হতে হবে।
  • অপেশাদারঃ অপেশাদার লাইসেন্স নিতে হলে আপনার বয়স কমপক্ষে ১৮ হতে হবে।

অপেশাদার ড্রাইভিং লাইসেন্স এর কিছু গুরুত্বপূর্ণ সীমাবদ্ধতা রয়েছে। এ কারণে আপনার বয়স সার্টিফিকেট অনুয্যায় ২১ হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করুন।অবশ্যই শারীরিক কিংবা মানসিক ভাবে সুস্থ থাকতে হবে। পাগল বেক্তির তো আর ড্রাইভিং লাইসেন্স লাগে না বা দিলে কি হতে পারে নিশ্চয় ধারণা আছে?

ড্রাইভিং লাইসেন্স এর জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্রঃ

যেকোনো ধরণের ড্রাইভিং লাইসেন্স করতে যেসব ডকুমেন্ট বা কাগজপত্রের প্রয়োজন হয় জেনে নিন।

লার্নার বা শিক্ষানবিশ ড্রাইভিং লাইসেন্সস্মার্টকার্ড ড্রাইভিং লাইসেন্স
সরাসরি/অনলাইনে আবেদনসরাসরি আবেদন
৩০০ x ৩০০ পিক্সেলমেডিক্যাল সার্টিফিকেট
মেডিক্যাল সার্টিফিকেটNID সত্যায়িত ফটোকপি
জাতীয় পরিচয়পত্রের স্ক্যান কপিনির্ধারিত ফী (পেশাদার- ১৬৭৯/-টাকা ও অপেশাদার- ২৫৪২/-টাকা)
১ ক্যাটাগরি-৩৪৫/-টাকা ও ২ ক্যাটাগরি-৫১৮/-টাকা পে করুননির্ধারিত ব্যাংকে জমাদানের রশিদ ও পুলিশি তদন্ত প্রতিবেদন।
এবং ইলেকট্রিক বিলের স্কান কপিনোতুন তোলা ১ কপি পাসপোর্ট সাইজ ছবি
ড্রাইভিং লাইসেন্স এর জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র এর তালিকা

স্মার্ট কার্ড ড্রাইভিং লাইসেন্স প্রন্টিং সম্পন্ন হলে গ্রাহককে এসএমএস এর মাধ্যমে জানিয়ে দেয়া হবে, কবে পেয়ে যাবেন সেটা। অথবা নিজে নিজে জানতে পারেবন।

ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক ও ড্রাইভিং লাইসেন্স হয়েছে কিনা কিভাবে জানবো

ড্রাইভিং লাইসেন্স এর জন্য পুরবের কাজগুলো করে থাকলে আপনাকে স্বাগতম। ড্রাইভিং লাইসেন্স এর জন্য সব প্রক্রিয়া যদি আপনি কমপ্লিট করে থাকেন। তাহলে, আপনার চিন্তা করার আসলেই কোন কারণ নেই।

সঠিক সময়ে আপনার ড্রাইভিং লাইসেন্স হতে পেয়ে যাবেন। হতে পারে সেটা স্মার্ট ড্রাইভিং লাইসেন্স। তারপরও যদি জানতে ইচ্ছা হয় ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক করবেন কিভাবে অথবা ড্রাইভিং লাইসেন্স হয়েছে কিনা কিভাবে জানবো আপনার জন্য সহজ কিছু সমাধান আছে আমাদের কাছে।

পড়তে থাকুন উত্তর পেয়ে যাবেন। কিভাবে ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক করবেন বিস্তারিত লেখা হয়েছে। যেকোনো স্থান থেকে খুব সহজে জানতে পারবেন আপনার ড্রাইভিং লাইসেন্স হয়েছে কিনা কিংবা কতদুর হয়েছে সেটা। ২ ভাবে এইটা জানতে পারবেন।

জন্ম নিবন্ধন সনদ ডাউনলোড

প্রথমত, মোবাইল দিয়ে এসএমএস এর মাধমে এবং সফটওয়্যার এর মাধ্যমে। যেকোনো একটি বা দুই ভাবেই ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক করে ফেলুন আপনার ড্রাইভিং লাইসেন্স হয়েছে কিনা।

ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক এর এসএমএস পদ্ধতি

  • মেসেজ অপশনে গিয়ে টাইপ করুন “DL”স্পেস “রেফারেন্স নম্বর”
  • সেন্ড করুন 26969 নম্বরে।
  • আরেকটি মেসেজ আসবে।
  • স্মার্ট কার্ড ড্রাইভিং লাইসেন্স প্রস্তুতের বর্তমান আপডেটসহ তথ্য জানতে পারবেন

বায়ো মেট্রিক্স সম্পন্ন করার পর বিআরটিএ থেকে যে এ্যাকনলেজমেন্ট স্লিপ দেওয়া হয় তাতে রেফারেন্স নাম্বার পেয়ে যাবেন। রেফারেন্স নম্বর এ যদি কোনো ড্যাশ (“-”) থাকে তবে তা বাদ দিতে হবে। কিন্তু যদি স্ল্যাশ (“/”) থাকে তবে তা বাদ দিবেন না এসএমএস করার সময়।

ড্রাইভিং লাইসেন্স হয়েছে কিনা কিভাবে জানবো সফটওয়্যার দিয়ে?

ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক করার সফটওয়্যার দিয়েও আপনি খুব সহজে জানতে পারবেন। তবে সাজেশন করব মেসেজ করে চেক করা বেটার কারণ অনেক সময় আপনার ইন্টারনেট স্পীড কম থাকলে লোড নিতে দেরি হতে পারে।

প্রথমে প্লে স্টোরে গিয়ে “DL CHECKER” এপটি নামিয়ে নিন। অথবা এখানে DL CHECKER ক্লিক করুন। ইন্সটল হয়ে গেলে ওপেন করুন এবং জন্ম তারিখ এবং DL No দিয়ে সাবমিট করুন। আপনার জাতীয় পরিচয় পত্রসহ কিছু ইনফরমেশন সোঁ করবে। এবংমজার বিষয় হচ্ছে আপনার ড্রাইভিং লাইসেন্স এর সকল ইনফরমেশন দেখাবে আপানাকে।